মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৪:৫২ পূর্বাহ্ন

আবারো সীমিত পরিসরে পালিত হল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস

তোফায়েল হোসেন
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ৬৪৬ বার পঠিত

আজ ১৭ এপ্রিল, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। ঐতিহাসিক মুজিবনগর সরকারের ৫০ বছর আজ। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে অনন্য এইদিন। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ১৯৭১ সালের এই দিনে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলা গ্রামের আম্রকাননে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে শপথ গ্রহণ করে। অস্থায়ী সরকারের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তাজউদ্দীন আহমদ, অর্থমন্ত্রী হিসেবে ক্যাপ্টেন মুহাম্মদ মনসুর আলী এবং স্বরাষ্ট্র, ত্রাণ ও পুনর্বাসনমন্ত্রী করা হয় এএইচএম কামরুজ্জামানকে। জেনারেল আতাউল গনি ওসমানীকে অস্থায়ী সরকারের মুক্তিবাহিনীর প্রধান কমান্ডার এবং মেজর জেনারেল আবদুর রব চিফ অব স্টাফ নিযুক্ত হন।
১৭ এপ্রিল ১৯৭১ সালে মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সনদ ঘোষণা করা হয়। স্বাধীন বাংলাদেশ সরকারের জন্মলগ্নের ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদসহ মন্ত্রিসভার অন্য মন্ত্রীরা এই পুণ্যভূমিতে শপথ গ্রহণ করেন। পরে বৈদ্যনাথতলাকে মুজিবনগর হিসেবে নামকরণ করা হয়। মুজিবনগর সরকারের সফল নেতৃত্বে ৯ মাসের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ স্বাধীন হয়।
বিগত বছরগুলোতে নানা আয়োজনে দিবসটি পালিত হলেও গত বছরের (২০২০) মার্চ মাসের ৮ তারিখ থেকে বাংলাদেশে বিশ্বব্যাধি করোনা ভাইরাস সনাক্ত হওয়ার পর নজিরবিহীন সংকটের মধ্যে পড়ে অনিচ্ছা সত্ত্বেও সরকার খুবই সীমিত পরিসরে দিবসটি পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিতে এবারও তার ব্যতিক্রম হল না।
আজ শনিবার ১৭ এপ্রিল, ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসের সুবর্ণজয়ন্তী। বাংলাদেশের স্বাধীনতাসংগ্রাম তথা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক অবিস্মরণীয় দিন। আজ থেকে ৫০ বছর আগে ১৯৭১ সালের এই দিনে তত্কালীন কুষ্টিয়া জেলার মেহেরপুর মহকুমার বৈদ্যনাথতলার আম্রকাননে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রথম মন্ত্রিসভা শপথ গ্রহণ করে। রচিত হয় স্বাধীন বাংলাদেশের নতুন ইতিহাস।
তারপরও করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিতে কঠোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এরই ধারাবহিকতায় আবারও সপ্তাহ ব্যাপী চলছে কঠোর লগডাউন। কঠোর লগডাউনের মধ্যে দিবসটি পড়ায় আবারও সীমিত পরিসরে পালন করা হলো ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশেষ বাণী দিয়েছেন।
মুজিবনগর দিবস উদযাপনের জন্য কোভিড-১৯ পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। মেহেরপুর জেলার মুজিবনগরের মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিকেন্দ্রে ১৭ এপ্রিল শনিবার সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসটির সূচনা হয়। সকাল সাড়ে ১০টায় মুজিবনগরের মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতিকেন্দ্রে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়। অনুষ্ঠানে মেহেরপুর জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মাননীয় জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন দোদুল এঁর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ। এ সময় জাতীয় সংসদের হুইপ জয়পুরÑ১ আসনের মাননীয় এমপি আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, ৭৪ মেহেরপুর-২ (গাংনী) আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য সাহিদুজ্জামান খোকন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক এমপি মকবুল হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও গাংনী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ খালেক, জেলা প্রশাসক ড. মুনছুর আলম খান, পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলী, মেহেরপুর পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন, গাংনী পৌর মেয়র আহম্মেদ আলীসহ আওয়ামী লীগ ও অংগ সংগঠনের বিভিন্ন ইউনিটের প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 gangnisongbad.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
ThemesBazar-Jowfhowo