মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ১১:২৬ অপরাহ্ন

মুজিবনগরে উপজেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে সংবাদ সম্মেলন

তোফায়েল হোসেন
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৩১ আগস্ট, ২০২১
  • ৫৪২ বার পঠিত

মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীগ সভাপতিকে বাদ দিয়ে কর্মী সমাবেশ
করায় সংবাদ সম্মেলন
আকতারুজ্জামা,মহেরপুর প্রতিনিধিঃ
মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতিকে বাদ দিয়ে কমীর্ সমাবেশ করায় জেলা
আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন
মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীলীগ।
সোমবার দুপুরে মুজিবনগর উপজেলা আওয়াামীলীগ কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন
অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়াামীলীগের সভাপতি ও
মুজিবনগর উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়া উদ্দিন বিশ্বাস।
এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহ-সভাপতি ও মুজিবনগর
উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম মোল্লা, মহাজনপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের
সভাপতি রেজাউর রহমান নান্নু, মোনাখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক
জামাত আলী, বাগোয়ান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক কুতুব
উদ্দিন।
সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জিয়া উদ্দিন বিশ্বাস বলেন, বঙ্গবন্ধুর
হাতে গড়া সংগঠন আওয়ামী লীগের সাথে দীর্ঘদিন ধরে তার সম্পৃক্ততা। তিনি ২২ বছর মুজিবনগর
উপজেলার বাগোয়ান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ২০০২ সাল
থেকে মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। ২০১৯ সালের
উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে জয় লাভ করে চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। মুজিনগরে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন কর্মসূচী তার নেতৃত্বেই
পরিচালিত হয়ে আসছে। অথচ গত ২৯ আগস্ট রোববার মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের
ব্যানার ব্যবহার করে কর্মী সমাবেশ করা হয়েছে। যে কর্মী সমাবেশে জেলা
আওয়ামীলীগের সভাপতি ও মাননীয় জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। কিন্তু উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসেবে
দলীয় ভাবে তাকে অবহিত করা হয়নি। সংগঠনের সভাপতিকে বাদ দিয়ে কিভাবে কর্মী
সমাবেশ হয় তা আমার বোধগম্য নয়। এটি একটি দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের শামিল।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফরহাদ
হোসেন মাননীয় এমপি মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমাম হোসেন
মিলুসহ গুটিকতক নেতাকর্মী নিয়ে জেলা আওয়ামীলীগের রাজনীতি করছেন। সংগঠনকে
কোন্দলের মুখে ঠেলে দিচ্ছেন। জেলা আওয়ামী লীগের একজন সদস্য হিসেবে বলতে পারি,
প্রায় তিন বছর কোন মিটিং হয়েছে কিনা জানিনা। এমতাবস্থায় বাংলাদেশ
আওয়ামীলীগের সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ ছাড়া এ কোন্দল মেটানো সম্ভব
নয়। মুজিবনগর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলামসহ অন্যান্য নেতৃবন্দ
জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি পদ থেকে ফরহাদ হোসেন ও মুজিবনগর উপজেলা
আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আমাম হোসেন মিলু অপসারণ দাবি করেছেন।
সংবাদ সম্মেলন উপজেলা আওয়ামী লীগ, উপজেলা যুবলীগ, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ অঙ্গসংগঠনের
নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 gangnisongbad.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
ThemesBazar-Jowfhowo